ভারতে বজ্রপাতে নিহত ৪১


ভারতজুড়ে রোববার (১৩ মে) বৃষ্টি ও বজ্রপাতে কমপক্ষে ৪১ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১৫০ জন। উত্তর প্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ ও দিল্লিতে এই হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, উত্তর প্রদেশের বিভিন্ন অংশে ঝড় ও বজ্রপাতে কমপক্ষে ১৮ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ২৮ জন। এদিকে বজ্রপাতে সেখানে অনেক কুঁড়েঘরে আগুন ধরে যায়।
উত্তর প্রদেশের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি (তথ্য) আনিশ আভাস্তি জানান, ঝড় ও বজ্রপাতে কমপক্ষে ২৮ জন নিহত হয়েছেন এবং প্রায় ৩৭টি ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ সব জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও কমিশনারদের তাৎক্ষণিকভাবে ত্রাণ সরবরাহ ও আহতদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করার নির্দেশ দিয়েছেন।

পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় ঝড় ও বজ্রপাতে কমপক্ষে ১২ জন নিহত এবং আরও ১৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। রাজ্যটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, রোববার বজ্রাঘাত ও ভারি বর্ষণের ঘটনায় এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

তিনি আরও জানান, হাওড়া জেলার উলুবেড়িয়া সাব-ডিভিশনে পাঁচজন, পশ্চিম মেদিনীপুর, উত্তর ২৪ পরগণা ও নদীয়া জেলায় দুইজন করে ও মুর্শিদাবাদ জেলায় একজন নিহত হয়েছেন।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বলেছেন, তার সরকার নিহতদের পরিবারদের সহায়তা দেবে। একইসঙ্গে ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া ঘরবাড়ি ও কৃষকদেরও সহায়তা দেবে তার সরকার। অন্ধ্রপ্রদেশের কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন, রাজ্যের শ্রীকাকুলাম ও কাডাপা জেলায় বজ্রাঘাতে ৯ জন নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন।

তারা জানাচ্ছেন, শ্রীকাকুলাম জেলায়ই নয়জন নিহত হয়েছেন। আর অন্য দুইজন কাডাপা জেলায় নিহত হয়েছেন। আহত তিন ব্যক্তিও কাডাপা জেলার বাসিন্দা। দিল্লির একটি ভবনের বাইরে গাড়ির ওপর গাছ ভেঙে পড়েছে

রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী (স্বরাষ্ট্র) এন চিনা রাজাপ্পা হতাহতের ঘটনায় শোক জানিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ওই জেলাগুলোর কর্তৃপক্ষের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন।

রাজধানী দিল্লিতে ঝড়ো বাতাস ও ধূলিঝড়ে কমপক্ষে দুইজন নিহত এবং আরও ১৮ জনের বেশি ব্যক্তি আহত হয়েছেন। ঝড়ের ঘটনায় বিমানের ফ্লাইট, রেল ও মেট্রো চলাচল ব্যাহত হয়েছে। রাজধানীর অনেক জায়গায় গাছ ভেঙে পড়লে ট্র্যাফিক ব্যবস্থাও ব্যাহত হয়। সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়ার